বিজ্ঞাপন

বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা

বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা করল ৪ যুবক৷ ওই ছাত্রী বর্তমানে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন৷ ঘটনায় আতঙ্ক গ্রাস করেছে তার পরিবারকে৷ সেকারণে এখনও পুলিশের কাছে অভিযোগ জানানোর সাহস পাননি ছাত্রীর অভিভাবকরা৷ সোমবার সন্ধে নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে ইংরেজবাজার থানার কাঞ্চনটার এলাকায়৷ ছাত্রীটির নাম রিংকি দাস৷ বাবা বিফল দাস পেশায় শ্রমিক৷ মা দীপালিদেবী সাধারণ গৃহবধূ৷ তাঁদের তিন মেয়ে৷ রিংকি তাঁদের মেজ মেয়ে৷ তাঁদের বাড়ি কাঞ্চনটার সংলগ্ন একে গোপালন কলোনিতে৷


বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা

রিংকি জানায়, বছরখানেক ধরেই চলাফেরার পথে তাকে উত্যক্ত করত সিটু ঘোষ নামে এক যুবক৷ তার বাড়ি এলাকারই খাসিমারি গ্রামে৷ প্রথমদিকে সে তাকে কোনও পাত্তা দেয়নি৷ কিন্তু সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে তার উত্যক্তের মাত্রা বাড়তে থাকে৷ সিটু তাকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়৷ কিন্তু বিয়ে করা দূরের কথা, সে সিটুর সঙ্গে কথা বলতেও অস্বীকার করে৷ সে পড়তে চায়৷ সে কাঞ্চনটার হাইস্কুলে নবম শ্রেণিতে পড়ে৷ গতকাল স্কুলে সবুজ সাথী প্রকল্পের সাইকেল পাওয়ার জন্য ফর্ম ফিল-আপ করার দিন ছিল৷ প্রতিদিনের মতো সে গতকালও স্কুলে যায়৷ ফর্ম ফিল-আপ করে স্কুল থেকে বেরোতে খানিকটা দেরি হয়ে যায় তার৷ হেঁটে বাড়ি ফেরার সময় তার রাস্তা আটকে দাঁড়ায় সিটু৷ সে মোটরবাইক সঙ্গে নিয়ে এসেছিল৷ তার সঙ্গে দুই বন্ধুও ছিল৷ তারা তাকে জোর করে মোটরবাইকে চাপানোর চেষ্টা করে৷ সেই সময় ওই এলাকায় লোকজন তেমন ছিল না৷ তবুও বাঁচতে সে প্রাণপণে চিৎকার শুরু করে৷ তার চিৎকারে সিটুরা তাকে আরও টানাটানি করতে শুরু করে৷ এতে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত লাগে৷ সৌভাগ্যের বিষয়, তার চিৎকারে কয়েকজন সেখানে এগিয়ে আসেন৷ তাদের দেখেই মোটরবাইকের সঙ্গে তাকে ছেড়ে দিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায় সিটুরা৷ স্থানীয়রাই ঘটনাটি জানান তার মাকে৷ ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন তার অভিভাবকরা৷ ঘটনাস্থল থেকেই তাকে মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়৷

দীপালিদেবী জানান, বছরখানেক আগেই মেয়ে তাঁকে জানিয়েছিল, সিটু তাকে উত্যক্ত করছে৷ শুধু রাস্তাঘাটেই নয়, সিটু তাঁদের বাড়িতে এসেও রিংকিকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়৷ বিয়ে না দিলে সে রিংকিকে তুলে নিয়ে যাওয়ারও হুমকি দেয়৷ কিন্তু তাঁরা এখন মেয়ের বিয়ে দেবে না বলে জানিয়ে দেন৷ অবশেষে সোমবার স্কুল থেকে ফেরার পথে সিটুরা তিন জন তাঁর মেয়েকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে৷ যদিও স্থানীয় মানুষের তৎপরতায় তারা সফল হতে পারেনি৷ কিন্তু এখনও সিটু তাঁদের ফোনে হুমকি দিচ্ছে৷ হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়ি ফিরে গেলে সে ফের রিংকিকে উঠিয়ে নিয়ে যাবে বলছে৷ এনিয়ে পুলিশে অভিযোগ করলে দেখে নেওয়ার হুমকিও দিচ্ছে সে৷ ভয়ে এখনও তাঁরা থানায় অভিযোগ জানাননি৷ তাঁর স্বামী আসলে এব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন৷ তবে তিনি সিটুর শাস্তি চান৷

বিজ্ঞাপন

MGH.jpg
পপুলার
1

চাল পাচার করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ল পুরকর্মী

চাল পাচার করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ল পুরকর্মী
2

তিন দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত দশ, শহরে খোলা শপিংমল

তিন দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত দশ, শহরে খোলা শপিংমল
3

ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত মালদার নেতাজি কলোনি, মোতায়েন পুলিশ

ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত মালদার নেতাজি কলোনি, মোতায়েন পুলিশ
4

চকলেটের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ব্যক্তি

চকলেটের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ব্যক্তি
5

পরীক্ষায় প্রতিদিন প্রায় ৫০ শতাংশ পজিটিভ, বেড বাড়ানো হচ্ছে মেডিকেলে

পরীক্ষায় প্রতিদিন প্রায় ৫০ শতাংশ পজিটিভ, বেড বাড়ানো হচ্ছে মেডিকেলে
Earnbounty_300_250_0208.jpg
টাটকা আপডেট