মামলা ঝুলছে, শরীরে ব্লেড চালালো অভিযুক্ত

মামলা ঝুলছে, শরীরে ব্লেড চালালো অভিযুক্ত


ভারতবর্ষের বিচার প্রক্রিয়া কতটা ঢিমে লয়ে চলে তা দর্শকদের দেখিয়ে দিয়েছিল ‘দামিনী’৷ তারিখ পে তারিখের সেই কিস্‌সা সম্ভবত এখনও বহাল৷ তারই উদাহরণ মিলল মালদায়৷ দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা মামলার নিষ্পত্তি না হওয়ায় মানসিক অবসাদে এদিন ভরা আদালতেই ধারালো ব্লেড দিয়ে নিজের শরীর ক্ষতবিক্ষত করলেন এক অভিযুক্ত৷ আপাতত তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন জেলা আদালতের জিআরও দপ্তরের কর্মীরা৷ তবে ভরদুপুরে প্রকাশ্যে ঘটে যাওয়া এই ঘটনায় আলোড়ন ছড়িয়ে পড়েছে আদালত চত্বরে৷ একই সঙ্গে দেশের দীর্ঘায়িত বিচার ব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷


২২ মাস আগে স্ত্রীকে নির্যাতন ও খুনের অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করে দীনেশ বর্মন নামে এক যুবককে৷ বছর চল্লিশের দীনেশ পেশায় ছিলেন কৃষিজীবী৷ তাঁর বাড়ি বামনগোলা থানার ডাকাতপুকুর গ্রামে৷ এই ঘটনায় তাঁর শ্বশুরবাড়ির তরফে বামনগোলা থানায় অভিযোগ দায়ের হয়৷ অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করে বামনগোলা থানার পুলিশ৷ দীনেশের বিরুদ্ধে ভারতীয় আইনের ৪৯৮ (এ), ৩০৭ (এ), ৩০২ ধারায় জামিন অযোগ্য মামলা রুজু করা হয়৷ তাঁকে জেল হেপাজতে রেখে জেলা আদালতের ফাস্ট ট্র্যাক প্রথম কোর্টে শুরু হয় বিচার প্রক্রিয়া৷

এদিন এই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের শেষ দিন নির্ধারিত ছিল৷ সেই মতো তাঁকে জেলা সংশোধনাগার থেকে আদালতে নিয়ে আসা হয়েছিল৷ নির্দিষ্ট সময়ে তাঁকে ফাস্ট ট্র্যাক প্রথম কোর্টে নিয়ে যাওয়া হয়৷ কিন্তু সরকার পক্ষের আইনজীবীরা আদালতে উপস্থিত হন নি৷ এমনকি সাক্ষীরাও আদালতে উপস্থিত হয়নি৷ ফলে দীনেশকে ফের আদালত থেকে হাজতে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে হয়৷ তখনই আদালতের মধ্যে পকেট থেকে ধারালো ব্লেড বের করে নিজেকে ক্ষতবিক্ষত করতে থাকেন দীনেশ৷ এই ঘটনায় নিরাপত্তায় দায়িত্বে থাকা পুলিশকর্মীরাও হতভম্ব হয়ে পড়েন৷ পরে তাঁরা কোনও রকমে দীনেশকে নিরস্ত করেন৷

দীনেশের আইনজীবী রতন সূত্রধর বলেন, এই মামলাটি দীর্ঘদিন ধরে চলছে৷ কিন্তু সরকার পক্ষের আইনজীবীরা নির্দিষ্ট দিনে আদালতে সাক্ষীদের উপস্থিত করাচ্ছেন না৷ ফলে গত ২২ মাস ধরে আসামী দীনেশ বর্মনকে সংশোধনাগারে রাখা হয়েছে৷ এদিকে তাঁর বাড়িতে রয়েছেন বৃদ্ধ বাবা-মা ও দুই সন্তান৷ এর মধ্যে এক ছেলের পা ভেঙে গিয়েছে৷ দীনেশরা নিতান্তই গরিব৷ তাঁদেরও ঠিকমতো ফিস দিতে পারেন না৷ বিচার প্রক্রিয়ায় দীর্ঘসূত্রিতায় এদিন মানসিক অবসাদে ভেঙে পড়েন দীনেশ৷ আদালতের সামনেই তিনি ব্লেড দিয়ে নিজেকে ক্ষতবিক্ষত করেন৷ দীনেশ তাঁদের জানিয়েছেন, সংশোধনাগার থেকেই তিনি ব্লেড নিয়ে আদালতে এসেছেন৷ সেখানে দীনেশ কীভাবে ব্লেড পেল তা জেলার ও জেলকর্মীরাই বলতে পারবেন৷ কিন্তু তাঁরাও চান, এই মামলার দ্রুত নিষ্পত্তি হোক৷

#Crime #DigitalDesk

হেডলাইন

প্রতিবেদন

মহানন্দার উজান স্রোতে ভবানীপুরে অশনির ঘণ্টা বাজছে

ফি বছর বর্ষায় বেড়ে যায় মহানন্দার জলস্তর। স্রোতের আওয়াজ ঘুমন্ত গ্রামবাসীদের কানের পর্দায় যেন ধাক্কা দেয়৷ এবারও বেড়েছে মহানন্দার জল৷ খানিকটা..

বিজ্ঞাপন

ফলো করুন
  • Facebook
  • Instagram
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest

সব খবর ইনবক্সে!

প্রতিদিন খবরের আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

Aamader Malda Worldwide, the only media of your hometown and its thoughts. Here you can share and express your views and thoughts and you'll get here the essence of MALDAIYA CULT...

You can reach us via email or phone.  P +91 3512-260260  E response@aamadermalda.in

  • Facebook
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest
  • Instagram
  • RSS

Copyright © 2020 Aamader Malda. All Rights Reserved.