বিজ্ঞাপন

মামলা ঝুলছে, শরীরে ব্লেড চালালো অভিযুক্ত


ভারতবর্ষের বিচার প্রক্রিয়া কতটা ঢিমে লয়ে চলে তা দর্শকদের দেখিয়ে দিয়েছিল ‘দামিনী’৷ তারিখ পে তারিখের সেই কিস্‌সা সম্ভবত এখনও বহাল৷ তারই উদাহরণ মিলল মালদায়৷ দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা মামলার নিষ্পত্তি না হওয়ায় মানসিক অবসাদে এদিন ভরা আদালতেই ধারালো ব্লেড দিয়ে নিজের শরীর ক্ষতবিক্ষত করলেন এক অভিযুক্ত৷ আপাতত তাঁর চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন জেলা আদালতের জিআরও দপ্তরের কর্মীরা৷ তবে ভরদুপুরে প্রকাশ্যে ঘটে যাওয়া এই ঘটনায় আলোড়ন ছড়িয়ে পড়েছে আদালত চত্বরে৷ একই সঙ্গে দেশের দীর্ঘায়িত বিচার ব্যবস্থা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে৷


২২ মাস আগে স্ত্রীকে নির্যাতন ও খুনের অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করে দীনেশ বর্মন নামে এক যুবককে৷ বছর চল্লিশের দীনেশ পেশায় ছিলেন কৃষিজীবী৷ তাঁর বাড়ি বামনগোলা থানার ডাকাতপুকুর গ্রামে৷ এই ঘটনায় তাঁর শ্বশুরবাড়ির তরফে বামনগোলা থানায় অভিযোগ দায়ের হয়৷ অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করে বামনগোলা থানার পুলিশ৷ দীনেশের বিরুদ্ধে ভারতীয় আইনের ৪৯৮ (এ), ৩০৭ (এ), ৩০২ ধারায় জামিন অযোগ্য মামলা রুজু করা হয়৷ তাঁকে জেল হেপাজতে রেখে জেলা আদালতের ফাস্ট ট্র্যাক প্রথম কোর্টে শুরু হয় বিচার প্রক্রিয়া৷

এদিন এই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের শেষ দিন নির্ধারিত ছিল৷ সেই মতো তাঁকে জেলা সংশোধনাগার থেকে আদালতে নিয়ে আসা হয়েছিল৷ নির্দিষ্ট সময়ে তাঁকে ফাস্ট ট্র্যাক প্রথম কোর্টে নিয়ে যাওয়া হয়৷ কিন্তু সরকার পক্ষের আইনজীবীরা আদালতে উপস্থিত হন নি৷ এমনকি সাক্ষীরাও আদালতে উপস্থিত হয়নি৷ ফলে দীনেশকে ফের আদালত থেকে হাজতে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে হয়৷ তখনই আদালতের মধ্যে পকেট থেকে ধারালো ব্লেড বের করে নিজেকে ক্ষতবিক্ষত করতে থাকেন দীনেশ৷ এই ঘটনায় নিরাপত্তায় দায়িত্বে থাকা পুলিশকর্মীরাও হতভম্ব হয়ে পড়েন৷ পরে তাঁরা কোনও রকমে দীনেশকে নিরস্ত করেন৷

দীনেশের আইনজীবী রতন সূত্রধর বলেন, এই মামলাটি দীর্ঘদিন ধরে চলছে৷ কিন্তু সরকার পক্ষের আইনজীবীরা নির্দিষ্ট দিনে আদালতে সাক্ষীদের উপস্থিত করাচ্ছেন না৷ ফলে গত ২২ মাস ধরে আসামী দীনেশ বর্মনকে সংশোধনাগারে রাখা হয়েছে৷ এদিকে তাঁর বাড়িতে রয়েছেন বৃদ্ধ বাবা-মা ও দুই সন্তান৷ এর মধ্যে এক ছেলের পা ভেঙে গিয়েছে৷ দীনেশরা নিতান্তই গরিব৷ তাঁদেরও ঠিকমতো ফিস দিতে পারেন না৷ বিচার প্রক্রিয়ায় দীর্ঘসূত্রিতায় এদিন মানসিক অবসাদে ভেঙে পড়েন দীনেশ৷ আদালতের সামনেই তিনি ব্লেড দিয়ে নিজেকে ক্ষতবিক্ষত করেন৷ দীনেশ তাঁদের জানিয়েছেন, সংশোধনাগার থেকেই তিনি ব্লেড নিয়ে আদালতে এসেছেন৷ সেখানে দীনেশ কীভাবে ব্লেড পেল তা জেলার ও জেলকর্মীরাই বলতে পারবেন৷ কিন্তু তাঁরাও চান, এই মামলার দ্রুত নিষ্পত্তি হোক৷

#Crime #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

Malda Guinea House.jpg

পপুলার

1

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের

Popular News

793

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের
2

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড

Popular News

679

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড
3

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ

Popular News

625

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ
4

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল

Popular News

702

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল
5

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়

Popular News

1306

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট
কমেন্ট করুন
 

aamadermalda.in

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS