বিজ্ঞাপন

মেধাবী ছাত্রের পড়াশোনার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন আশিস কুণ্ডু



দৃষ্টান্ত গড়লেন মালদা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান আশিস কুণ্ডু৷ অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত, মেধাবী এক ছাত্রের পড়াশোনার সমস্ত দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন তিনি৷ নাটকীয় এই ঘটনাটি এদিন ঘটেছে তাঁর দপ্তরেই৷

মানিকচক থানার জালালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ডোমহাট সোনারপুর গ্রামের বাসিন্দা গোপাল মণ্ডল৷ বয়স ১৮৷ বছর সত্তরের বাবা মেঘু মণ্ডল কর্মক্ষমতা হারিয়েছেন বেশ কিছুদিন আগে৷ এখন বাড়িতেই থাকেন তিনি৷ মা মাতু মণ্ডল কৃষি শ্রমিকের কাজ করেন৷ গোপালরা পাঁচ ভাই৷ বড়ো তিন ভাই দীপক, তপন ও কান্ত ভিনরাজ্যে শ্রমিকের কাজ করেন৷ তাঁরা প্রত্যেকেই বিবাহিত৷ নিজেদের সংসার নিয়ে আলাদা থাকেন৷ এখন মণ্ডল পরিবারের সদস্য চার জন৷ মেঘুবাবু, মাতুদেবী, গোপাল আর ছোটো ছেলে মৃত্যুঞ্জয়৷ দিয়ারায় কৃষি শ্রমিকের কাজ করে কোনওরকমে সংসার চালানোর পাশাপাশি দুই ছেলের পড়াশোনাও চালাচ্ছেন মাতুদেবী৷

মায়ের কঠোর পরিশ্রম বৃথা যায়নি৷ গোপাল ও মৃত্যুঞ্জয় স্থানীয় মানিকচক হাইস্কুলের ছাত্র৷ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ৫৪ শতাংশ নম্বর পান গোপাল৷ কিন্তু তাঁর পড়াশোনার আগ্রহ নজর কাড়ে শিক্ষকদের৷ স্কুলের বেশ কিছু শিক্ষক বিনা পারিশ্রমিকে গোপালকে পড়াতে শুরু করেন৷ তাঁদের পরিশ্রমও সার্থক হয়৷ উচ্চ মাধ্যমিকে ৮৫ শতাংশ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হন গোপাল৷ কিন্তু ভালো নম্বর পাওয়াটাই যেন কাল হয়ে দাঁড়ায় গোপালের৷ হা-ভাতে সংসারে উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন কতটা দেখা যেতে পারে তা স্থির করতে পারেন না তিনি৷ স্বপ্ন ছিল শিক্ষক হওয়ার৷ সেই স্বপ্নের ডানায় ভর দিয়ে শোভানগরের সরকারি বিএড কলেজে ভর্তির আবেদনপত্র জমা দেন তিনি৷ অ্যাডমিশন টেস্টে বসে উত্তীর্ণও হয়ে যান৷ তালিকার উপরের দিকে তাঁর নাম৷ কিন্তু পড়ার খরচ যে ৬০-৭০ হাজার টাকা! কে যোগাবে? চিন্তায় অস্থির হয়ে পড়েন গোপাল৷ সেই সময় তাঁর স্কুলের এক শিক্ষিকা, গোপালের কথায় শ্রুতি ম্যাডাম তাঁকে পরামর্শ দেন, তিনি যেন মালদা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ চেয়ারম্যান আশিস কুণ্ডুর সঙ্গে দেখা করে সব ঘটনা খুলে বলেন৷

শ্রুতিদেবীর কথায় ভর করে এদিন দুপুরে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদে আশিসবাবুর সঙ্গে দেখা করতে আসেন গোপাল৷ প্রতিদিনের মতো এদিন দুপুরেও কাজে ব্যস্ত ছিলেন আশিসবাবু৷ হঠাৎ গোপাল তাঁর ঘরে ঢুকে হাউমাউ করে কাঁদতে শুরু করেন৷ ঘটনার আকস্মিকতায় প্রথমে হতভম্ব হয়ে যান আশিসবাবু৷ তিনি গোপালকে চেয়ারে বসান৷ সব কথা শোনেন৷ এরপরেই তিনি সিদ্ধান্ত নেন, গোপালের পড়াশোনার সমস্ত দায়িত্ব তিনিই বহন করবেন৷ আশিসবাবুর কথা শুনে বিহ্বল হয়ে পড়েন গোপাল৷ তাঁর স্বপ্ন যে সত্যিই বাস্তব হতে চলেছে সেকথাটা যেন বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না তিনি৷ কৃতজ্ঞতার অশ্রু তখন তাঁর দু’চোখ ভাসাচ্ছে৷

আশিসবাবু জানান, গোপালের পড়াশোনার ভার নিয়ে তিনি গর্বিত৷ যারা চরম দারিদ্র উপেক্ষা করে পড়াশোনা করতে চায়, তাদের পাশে সবারই দাঁড়ানো উচিত বলে মনে করেন তিনি৷

#Education #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

Malda Guinea House.jpg

পপুলার

1

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের

Popular News

577

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের
2

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড

Popular News

646

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড
3

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ

Popular News

620

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ
4

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল

Popular News

701

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল
5

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়

Popular News

1302

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট
কমেন্ট করুন
 

aamadermalda.in

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS