বিজ্ঞাপন

পণের দাবিতে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুন



পণের টাকা দিতে না পারায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামীর সহ পরিবারের বিরুদ্ধে। মৃত গৃহবধূর দেহ উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠিয়েছে হবিবপুর থানার পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে হবিবপুর ব্লকের আকতৈল গ্রাম পঞ্চায়েতের নরসিংহবাটি গ্রামে। অভিযোগের ভিত্তিতে মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করলেও বাকিরা পলাতক।

মৃত গৃহবধূর নাম দীপ্তি দাস। বয়স ২৬ বছর। বাবা গত হয়েছেন বহুদিন আগেই। প্রায় ৮ বছর আগে দীপ্তির বিয়ে হয় নরসিংহবাটি গ্রামের অমল দাসের সঙ্গে। অমল অধিকাংশ সময় ভিনরাজ্যে শ্রমিকের কাজে থাকে। দিন কয়েক আগে অমল বাড়ি ফিরে এসেছে।

দীপ্তির বোন জামাই বিশ্বজিৎ দাস জানান, বিয়ের পর থেকেই বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য দীপ্তিকে চাপ দিত অমল ও তার পরিবার। দীপ্তিকে কিছু টাকাও দেন তাঁর মা। কিন্তু দিনের পর দিন অমলের লোভ বাড়তেই থাকে। বাড়তে থাকে দীপ্তির উপর অত্যাচার। দিন কয়েক আগে অমল দীপ্তিকে বাড়ি থেকে ১ লক্ষ টাকা আনতে বলে। তাঁর শাশুড়ি জানিয়ে দেন এত টাকা দেওয়ার সামর্থ্য তাঁর নেই। গতকাল দুপুরে অমল তাঁর শাশুড়ি ফোন করে জানায়, দীপ্তি বিষ পান করেছে। খবর পেয়েই তাঁরা সকলে অমলের বাড়িতে যান। সেখানে গিয়ে দেখেন ঘরের মেঝেতে পড়ে রয়েছে দীপ্তি। দীপ্তির সারা শরীর পাথরের মতো শক্ত, মুখে রক্তের দাগ ও রয়েছে। তাঁদের সন্দেহ হয় দীপ্তিকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গেই তাঁরা খবর দেন হবিবপুর থানায়। হবিবপুর থানার পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়। তাঁরা একটি লিখিত অভিযোগও দায়ের করেন অমল ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে।

হবিবপুর থানার পুলিশ জানিয়েছে, এদিন মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে মূল অভিযুক্ত অমল দাসকে গ্রেফতার করা হলেও বাকি অভিযুক্তরা পলাতক।

ছবিটি প্রতীকী।

#DigitalDesk #Crime

3 views

বিজ্ঞাপন

MGH-Advt.jpg
পপুলার
1

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন

চোরাই মোবাইল পাচারচক্রের হদিশ, ধৃত তিন
2

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে

সরানো হল মালদা সদর মহকুমাশাসককে
3

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর

কেন ইংলিশবাজার? নাম পরিবর্তনের ইচ্ছে বিজেপি প্রার্থীর
4

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি

ইংরেজবাজারে উদ্ধার মানুষের মাথার খুলি
5

করোনায় আক্রান্ত রেলকর্মীর মৃত্যু, আতঙ্ক মালদা শহরে

করোনায় আক্রান্ত রেলকর্মীর মৃত্যু, আতঙ্ক মালদা শহরে
Earnbounty_300_250_0208.jpg
টাটকা আপডেট