বিজ্ঞাপন

দুর্ঘটনায় পথ আটকাল ক্ষিপ্ত জনতা


সিভিক ভলান্টিয়ারদের তোলা আদায়ের বলি হলেন এক খালাসি। এদিন ভোর সাড়ে চারটা নাগাদ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে গাজোলের ঘাকশোল গ্রামের কাছে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, ভোর রাতে জাতীয় সড়কে গাড়ি থামিয়ে তোলা আদায় করছিলেন সিভিক ভলান্টিয়াররা। সেকারণেই এই দুর্ঘটনা। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। তাঁদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। মুখ্যমন্ত্রী জেলায় থাকাকালীন সিভিক ভলান্টিয়ারদের এমন তোলাবাজির ঘটনা মেনে নিতে পারছেন না স্থানীয় মানুষজন।


স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় প্রতিদিন রাতেই গাজোল থানার কিছু সিভিক ভলান্টিয়ার জাতীয় সড়কে চলাচলকারী লরি থেকে তোলা আদায় করে। গতকাল রাতেও একই ঘটনা চলছিল। সেকথা সমর্থন করে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য বিকাশ সাহা বলেন, সিভিকদের তোলাবাজি চলছিল এদিন ভোরেও। তারা জাতীয় সড়কের উপর রায়গঞ্জগামী একটি পণ্যবোঝাই লরি দাঁড় করিয়ে টাকা তুলছিল। সেই সময় পিছন দিক থেকে একটি ডাম্পার সেই লরিটিকে ধাক্কা মারে। ভোরের কুয়াশায় রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে থাকা লরিটিকে সম্ভবত দেখতে পাননি ডাম্পারচালক। ধাক্কায় লরিটি সড়কের ধারে থাকা একটি নয়ানজুলিতে নেমে যায়। আহত হন লরিচালক ও খালাসি। কিন্তু গুরুতর আহত হন ডাম্পারচালক ও সেই গাড়ির খালাসি। সংঘর্ষের শব্দে স্থানীয়রা ছুটে আসেন। তাঁরাই দীর্ঘক্ষণ চেষ্টা করে ডাম্পারচালককে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয় গাজোল গ্রামীণ হাসপাতালে পাঠান। কিন্তু ঘণ্টাখানেক পর ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় সেই গাড়ির খালাসির।

বিকাশবাবুর অভিযোগ, দুর্ঘটনাস্থল থেকে ৫০০ মিটার দূরেই টোল প্লাজা। সেখানে খবর দেওয়া হলেও প্লাজা থেকে দুর্ঘটনায় আহতদের উদ্ধারের জন্য কেউ আসেনি। অনেক পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় গাজোল থানার পুলিশ। এই নিষ্ক্রিয়তায় স্থানীয়রা জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন। পরে অবশ্য মানুষের ভোগান্তির কথা ভেবে জাতীয় সড়কের একদিক খুলে দেওয়া হয়। কিন্তু ঘণ্টা তিনেক পরেও জাতীয় সড়ক যানজটমুক্ত হয়নি।

এদিনের এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে গাজোল থানার পুলিশ। মৃত খালাসি কিংবা গুরুতর আহত ডাম্পারচালকের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। তবে মুখ্যমন্ত্রী জেলায় থাকাকালীন সিভিকদের এই তোলাবাজিতে উদ্বিগ্ন সকলেই।

এদিকে গাজোলের এই দুর্ঘটনায় জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে থাকায় ডালখোলা থেকে বহরমপুরগামী একটি সরকারি বাস ঘুরপথে মালদা আসার চেষ্টা করলে হবিবপুর থানার আইহোর কাছে সেটিও দুর্ঘটনার মুখে পড়ে। আইহোর কাছে বামনগোলা-মালদা রাজ্য সড়কে বাসটির সঙ্গে একটি বালি বোঝাই লরির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এই ঘটনায় ৮ জন আহত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাঁদের মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, বালি বোঝায় লরিটি মালদা শহর থেকে নালাগোলার দিকে যাচ্ছিল। সেই সময় আইহো এলাকায় বাস ও লরির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। ঘটনার সময় বাসে ৫৫-৬০ যাত্রী ভরতি ছিল বলে যাত্রীরা দাবি করেছেন। দুর্ঘটনার শব্দে স্থানীয় লোকজন ছুটে এসে আহতদের উদ্ধার করে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। ঘটনায় আহত আটজন বাস যাত্রীর মধ্যে তিন জন যাত্রীর আঘাত গুরুতর থাকায় তাদের চিকিৎসা চলছে হাসপাতালে।

প্রতীকী ছবি সৌজন্যে পিক্স অ্যাবে।

#Misc #DigitalDesk

4 views

বিজ্ঞাপন

MGH.jpg
পপুলার
1

চাল পাচার করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ল পুরকর্মী

চাল পাচার করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ল পুরকর্মী
2

তিন দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত দশ, শহরে খোলা শপিংমল

তিন দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত দশ, শহরে খোলা শপিংমল
3

ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত মালদার নেতাজি কলোনি, মোতায়েন পুলিশ

ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত মালদার নেতাজি কলোনি, মোতায়েন পুলিশ
4

চকলেটের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ব্যক্তি

চকলেটের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ব্যক্তি
5

পরীক্ষায় প্রতিদিন প্রায় ৫০ শতাংশ পজিটিভ, বেড বাড়ানো হচ্ছে মেডিকেলে

পরীক্ষায় প্রতিদিন প্রায় ৫০ শতাংশ পজিটিভ, বেড বাড়ানো হচ্ছে মেডিকেলে
Earnbounty_300_250_0208.jpg