ডাইনি অপবাদে ওল্ড মালদায় পরিবার ঘরছাড়া

ডাইনি ও তার সহযোগী সন্দেহে এক প্রৌঢ়া সহ এক পরিবারকে গ্রাম ছাড়া করেছে আদিবাসী সমাজের একাংশ। গোটা ঘটনা ঘিরে এদিন মালদা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ পেয়েই গ্রামে ছুটে গিয়েছে মালদা থানার পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে গ্রামে সচেতনতা শিবিরেরও আয়োজন করা হয়েছে ৷ তবে অভিযুক্তরা সবাই গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ায় তাদের সন্ধান পায়নি পুলিশ৷ ঘটনাটি ঘটেছে পুরাতন মালদা ব্লকের যাত্রাডাঙ্গার কানপাড়া গ্রামে।

কানপাড়া গ্রামে দীর্ঘদিনের বসবাস ২৪ বর্ষীয় মুসিলাল সোরেনের৷ পেশায় শ্রমিক৷ তাঁর স্ত্রী সোনালি কিস্কু ৮ মাসের অন্তঃসত্তা৷ পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, সম্প্রতি মুসিলাল অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন৷ সেই সময় পাশের গোবিন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা সাগি মুর্মু তাঁদের বাড়িতে আসেন৷ গ্রামে কবিরাজির জন্য বেশ সুনাম রয়েছে তাঁর৷ তিনি মুসিলালকেও ওষুধ দেন৷ বেশ কিছুদিন ওষুধ খাওয়ার পর সুস্থ হয়ে ওঠেন মুসিলাল৷ সুস্থ হওয়ার পর গত শুক্রবার মুসিলালকে নিয়ে সাগি দক্ষিণ দিনাজপুরের বোল্লা কালীমন্দিরে পুজো দিতে যান৷ ফেরার সময় তারা ওই মন্দির থেকে কালীর ছবি ও কিছুটা লাল শালু সঙ্গে নিয়ে এসে মুসিলালের বাড়িতে সেই ছবি ও লাল শালু টাঙিয়ে দেন৷ তাঁদের বিশ্বাস ছিল, কালীর ছবি ও মন্দির থেকে পাওয়া লাল শালু বাড়িতে টাঙিয়ে রাখলে পরিবারের কেউ আর অসুস্থ হবে না৷


ডাইনি অপবাদে ওল্ড মালদায় পরিবার ঘরছাড়া

এতেই ঘটে বিপত্তি৷ ঘরে কালীর ছবি ও লাল শালু টাঙানোর ঘটনা মেনে নিতে পারেনি মুসিলালেরই আত্মীয়রা৷ তারা সাগিকে ডাইন (ফুকসিন) চিহ্নিত করে৷ সাগির সঙ্গে থাকার জন্য তারা মুসিলালকেও ফুকসিনের সহযোগী বলে চিহ্নিত করে৷ শুক্রবার রাতেই তারা সাগি ও মুসিলালকে মারার চেষ্টা করে৷ সাগি ও মুসিলাল বুঝে যান, গ্রামে থাকলে তাঁরা খুন হয়ে যাবেন৷ তাঁরা রাতেই গ্রাম থেকে পালিয়ে যান৷ শনিবার সকালে তাঁরা মালদা থানায় এসে গোটা ঘটনাটি মৌখিকভাবে জানান৷ বিষয়টি জানতে পেরে গতকাল ওই গ্রামে খোঁজখবর নেওয়ার জন্য ভিলেজ পুলিশ পাঠানো হয়৷

এদিকে গতকাল দুপুরে দলবল নিয়ে মুসিলালের বাড়িতে হানা দেয় আদিবাসী সম্প্রদায়ের একাংশ৷ তারা মুসিলালেরও খোঁজ করতে থাকে৷ মুসিলালের পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বুঝে যান, পরিস্থিতি খারাপ৷ তাঁরাও গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যান৷ গতকাল তাঁরা সবাই গাছতলায় রাত কাটিয়েছেন৷ এদিন সকালে তাঁরা ফের মালদা থানায় যান৷ গোটা ঘটনায় মদন, মাইকু, পার্বতী সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন৷ এদিন দুপুরে ফের গ্রামে যায় পুলিশ৷ সেখানে একটি সচেতনতা শিবিরেরও আয়োজন করা হয়৷ কিন্তু অভিযুক্তরা সবাই গ্রাম থেকে পালিয়ে যাওয়ায় তাদের সন্ধান পাওয়া যায়নি৷ পুলিশ জানিয়েছে, মুসিলালের পরিবার সহ সাগি মুর্মুকে দ্রুত নিজেদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে৷ পলাতক অভিযুক্তদের খোঁজ চলছে ৷

ছবিটি প্রতীকী।

1
রাতে 'কুপিয়ে' খুন হলেন দু’জন, মোতায়েন বিশাল পুলিশবাহিনী

Popular News

777

2
কফিনবন্দি দেহ ফিরল মালদায়, স্যালুট জানিয়ে শেষ শ্রদ্ধা পুলিশের

Popular News

889

3
গঙ্গায় মিশে যেতে পারে ফুলহর, বাজছে বিপদ ঘণ্টা

Popular News

849

4
আত্মীয়ের বাড়িতে এসে গ্রেফতার বাংলাদেশি

Popular News

1325

5
বাংলাদেশে পণ্য পাঠানো বন্ধ করে দিলেন মহদীপুরের এক্সপোর্টার্সরা

Popular News

897

পপুলার

বিজ্ঞাপন

টাটকা আপডেট
 

aamadermalda.in

আমাদের মালদা

সাবস্ক্রিপশন

যোগাযোগ

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS