ইংরেজবাজার

ইংরেজবাজার


ইংরেজরা নতুন বন্ধু খুঁজে পেয়েছিল মকদুমপুরের জমিদার রাজা রায়চৌধুরিকে৷ সেসময় তাঁর অর্থাভাব চলছিল৷ খাজনা বাকি পড়ায় রাজা মাত্র তিনশো টাকায় মহানন্দা পাড়ে মকদুমপুরে ৫৬ বিঘার মতো চতুষ্কোণ জমি ইংরেজদের বিক্রি করে দেয়৷ লিখেছেন ড. সুস্মিতা সোম


১৬২১

ইংরেজরা এই অঞ্চল থেকে কাঁচা রেশম কিনে বিদেশে রপ্তানি করত৷ কাঁচা সিল্ক তাঁরা কিনত দেশে পাঠাবার জন্য৷ আর শিল্পজাত সিল্ক প্রত্যক্ষভাবে বিদেশে বিক্রি করবার জন্য৷ মালদহ জেলায় এই দুই ধরনের সিল্কই প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যেত৷

১৬৭০

ইংরেজরা তাদের দেশের সিল্কের চাহিদা মেটানোর জন্য পারস্য থেকে সিল্ক কিনত৷ কিন্তু রাজনৈতিক কারণে তখন ইংরেজদের পক্ষে পারস্যের সিল্ক কেনা প্রতিকূল হয়ে দাঁড়াল৷ ফলে ইংরেজদের নজর গিয়ে পড়ল বাংলার রেশম শিল্পের ওপর৷

১৬৭৬

ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির কাশিমবাজার কুঠির ডাইরিতে অক্টোবর মাসে প্রথম মালদায় একটি ইংরেজ কুঠি খোলার সম্ভাবনা বিচার করে দেখা হয়৷ কারণ তখন এই জেলার খ্যাতি ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি তখন ভারতের অনেক রাজ্যেরই দৃষ্টির কেন্দ্রে৷ এই জেলার অর্থনৈতিক ভিত্তি ছিল ‘রেশম শিল্প’৷

১৬৮০

এপ্রিল মাসে কোম্পানির বাণিজ্য প্রধান ম্যথিয়াস ভিনসেন্ট মালদায় এলেন৷ স্থাপিত হল বাণিজ্য কুঠি৷ ব্রিটিশরা আবিষ্কার করল যে মালদহের কাঁচা রেশম ক্যাপিসবাজার বা ঢাকা থেকেও অনেক সস্তা৷

১৬৮২

মালদহ অঞ্চলের মসলিন পৃথিবী বিখ্যাত হয়ে উঠেছিল৷ ঐতিহাসিক সুশীল চৌধুরি দেখিয়েছেন যে, ইংরেজবাজার কুঠি তখন যে অর্ডার পেয়েছিল তার হিসেব নিলে বিস্ময়ে অভিভূত হয়ে যেতে হয়৷ মসলিন ভ্যারাইটির আটটি আইটেম রপ্তানি হয়েছিল-- কোসিজ, মলমল, তাঞ্জিব, ফাইন, সারব্যান্ড ফাইন রিহীংস, হামাম, আদাতিন ফাইন এবং বার্ডস আই৷

১৭৬৫

ইংরেজরা বাংলা, বিহার এবং ওডিশার আংশিক অঞ্চলের ওপর দেওয়ানি লাভ করে৷ এই আনন্দ সংবাদের প্রতিক্রিয়াস্বরূপ বোর্ড অফ ডিরেক্টর্স রাজস্ব উৎপাদন এবং কোম্পানির মূলধনের লগ্নি বাড়ানোর জন্য ব্যবস্থা নেয়৷ এরপর ফরাসি ব্যক্তির সাহায্যে বাংলায় প্রথম গুটি থেকে রেশম সুতো বার করার কাজ আরম্ভ হয়৷ মালদহে প্রথম এই ধরনের কুঠি স্থাপিত হয় জর্জ উডনির উদ্যোগে সিঙ্গাতলায়৷

ইলাসট্রেশনঃ দুলাল সরকার

#PrintEdition #SusmitaShome

হেডলাইন

প্রতিবেদন

জুলুমে রাস্তা সাফ হরিশ্চন্দ্রপুরে

দাপটের জন্য এলাকায় জুলুম সিং নামে পরিচিত৷ তাঁর ভয়ে রাস্তায় নোংরা ফেলার জো নেই কারোর। সকাল থেকে সন্ধে ঝাঁটা হাতে এলাকা পরিষ্কার রাখতে দেখা...

বিজ্ঞাপন

ফলো করুন
  • Facebook
  • Instagram
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest

সব খবর ইনবক্সে!

প্রতিদিন খবরের আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

Aamader Malda Worldwide, the only media of your hometown and its thoughts. Here you can share and express your views and thoughts and you'll get here the essence of MALDAIYA CULT...

You can reach us via email or phone.  P +91 3512-260260  E response@aamadermalda.in

  • Facebook
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest
  • Instagram
  • RSS

Copyright © 2020 Aamader Malda. All Rights Reserved.