বিজ্ঞাপন

আবার রাজস্থানে খুন মালদার এক শ্রমিক


আবার ঘটনাস্থল সেই রাজস্থান৷ গত মঙ্গলবার রাজস্থানের জয়পুরে মালদার এক শ্রমিককে অ্যাসিড ঢেলে খুন করা হয়েছে৷ ওই শ্রমিকের মৃতদেহ নিয়ে মালদার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছেন পরিবারের এক সদস্য সহ দু’জন৷ কালিয়াচকের সৈয়দপুর গ্রামের শ্রমিক আফরাজুল খানের খুনের দৃশ্য এখনও ভুলতে পারেননি মালদাবাসী৷ সেই ঘটনার রেশ মিলাতে না মিলাতেই ফের নৃশংসভাবে খুন হলেন মালদার আরেক পরিযায়ী শ্রমিক৷


মৃত শ্রমিক পেশায় ডেকোরেটর মিস্ত্রি৷ বাড়ি চাঁচল থানার স্বরূপগঞ্জ গ্রামের মল্লিকপাড়ায়৷ নাম সাকির আলি, বয়স ৩৮৷ আগে গ্রামে একটি পানের দোকান করতেন তিনি৷ বাড়িতে রয়েছেন বৃদ্ধ বাবা গিয়াসুদ্দিন মণ্ডল৷ স্বরূপগঞ্জ বাঁধের উপর ছোট্ট একটি পানের দোকান রয়েছে তাঁর৷ মা আবেদা বিবি সাধারণ গৃহবধূ৷ সাকিররা ৪ ভাই ও ২ বোন৷ ভাইরা সবাই আলাদা থাকেন৷ ছোটো থেকেই মাঝেমধ্যে ভিন রাজ্যে কাজ করতেন সাকির৷ বছর পনেরো আগে তিনি বিয়েও করেন৷ সেই সময় তিনি মুম্বইয়ে কাজ করতেন৷ সেখানে থাকাকালীন এক বার-ড্যান্সারের সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়৷ সেই মুন্নিবাইকেই বিয়ে করেন তিনি৷ তাঁদের ১৩ বছরের একটি মেয়েও রয়েছে৷ তবে বছর আটেক আগে মুন্নিবাইয়ের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয় সাকিরের৷ তারপর থেকে পরিবারের সঙ্গেও তাঁর খুব একটা যোগাযোগ নেই৷ বছর পাঁচেক আগে শেষবার বাড়িতে আসেন সাকির৷ তখন তিনি রাজস্থানের জয়পুরে ডেকোরেটর মিস্ত্রির কাজ শুরু করেছেন৷ জয়পুর থেকে অন্য কোথাও আর তিনি যাননি৷

সাকির জয়পুরের নারিনায় শাস্ত্রীনগর থানার হাজি কলোনি রোডে একটি ৬ তলা বাড়িতে ভাড়া থাকতেন৷ মঙ্গলবার বিকেলে তাঁদের কাছে সেখান থেকে ফোন আসে, সাকির খুন হয়ে গিয়েছে, একথা বললেন সাকিরের এক ভাই জাকির আলি। এরপর তাঁরা খোঁজখবর শুরু করেন৷ কে বা কারা, কেন সাকিরকে অ্যাসিড দিয়ে পুড়িয়ে খুন করেছে তা তাঁরা জানেন না৷ সাকিরের এক আত্মীয় মঞ্জুর আলম বাবুল বলেন, জয়পুরে যে বাড়িতে সাকির ভাড়া থাকতেন তার মালিকের নাম লতিফ৷ নিজের ঘরেই তার লাশ পড়ে ছিল বলে জানতে পারেন তাঁরা৷ এরপর তাঁরা নিজের খরচে সাকিরের মৃতদেহ নিয়ে আসার ব্যবস্থা করেন৷ সেখানকার পুলিশ প্রশাসন নাকি এই ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে৷ কেন সাকিরকে খুন করা হল, তা এখনও তাঁরা জানেন না৷ তবে তাঁরা দোষীদের শাস্তি চান৷

বাবা গিয়াসুদ্দিন মণ্ডলের বক্তব্য, মাঝেমধ্যে ছেলের সঙ্গে কথা হত৷ ফোন মারফৎ তাঁরা জেনেছেন, তাঁর ছেলেকে খুন করা হয়েছে৷ এর বেশি আর কিছু বলার নেই তাঁর৷ কথা বলার ভাষা হারিয়েছেন আবেদা বিবিও৷ এখন তিনি ছেলের মৃতদেহের পথ চেয়ে বসে রয়েছেন বাড়ির দাওয়ায়৷

আফরাজুলকে নৃশংসভাবে খুন করার পর সেই দৃশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিয়েছিল খুনি শম্ভুলাল রেগার৷ গত ৬ ডিসেম্বর রাজস্থানের রাজসমন্দ জেলার সেই দৃশ্য দেশ জুড়ে ভাইরাল হয়ে যায়৷ দেশবাসীর চাপে শম্ভুলালের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেয় সেই রাজ্যের সরকার৷ এবার সেই রাজস্থানেই মালদার আরেক শ্রমিকের মৃত্যু কাহিনি এখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত হয়নি৷ ফলে এই ঘটনায় রাজস্থান সরকার কী ব্যবস্থা নিচ্ছে তা জানা নেই৷ জানা নেই, এই রাজ্যের সরকারও আফরাজুলের পরিবারের মতো সাকির শেখের পরিবারের পাশে দাঁড়াচ্ছে কিনা৷ তবে সাকিরের খুনের খবর পেয়ে এদিনই তাঁর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছেন এলাকার সাংসদ, জেলা কংগ্রেস সভানেত্রী মৌসম নূর৷ যাচ্ছেন সিপিএমের জেলা সম্পাদক অম্বর মিত্রও৷ তেমনটাই জানিয়েছেন তাঁরা৷

#Crime #DigitalDesk

বিজ্ঞাপন

Malda Guinea House.jpg

পপুলার

1

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড

Popular News

548

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড
2

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ

Popular News

619

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ
3

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল

Popular News

700

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল
4

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়

Popular News

1300

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়
5

দোকানে হানা, মাদক বিক্রেতাদের কঠোর বার্তা পুলিশের

Popular News

545

দোকানে হানা, মাদক বিক্রেতাদের কঠোর বার্তা পুলিশের
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট
কমেন্ট করুন
 

aamadermalda.in

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS