বিজ্ঞাপন

যেমন কথা তেমন কাজ- যেন বলিউডের সিংঘম

এ যেন বলিউডের ‘সিংঘম’, যেমন কথা তেমন কাজ৷ তারই প্রমাণ জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য৷ তাঁর নির্দেশ পেয়ে এদিন সকাল থেকে আদালত সংলগ্ন সরকারি জায়গায় গড়ে ওঠা বেআইনি ক্লাবঘর ভাঙার কাজ শুরু করল জেলা প্রশাসন৷ তবে ওই ক্লাবঘরে প্রচুর মালপত্র থাকায় সেগুলি সরানোর জন্য এদিন সন্ধে পর্যন্ত ক্লাব সদস্যদের সময় দিয়েছে প্রশাসন৷ এই ঘটনা নিয়ে সাতসকাল থেকেই চাঞ্চল্য শহরের বাঁধরোড এলাকায়৷


প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরির বাড়ি থেকে মাত্র ১০০ মিটার দূরে এই বেআইনি ক্লাবঘর৷ প্রথমে রাস্তার পাশে একটি কালী মন্দির তৈরি হয়৷ পরে তার পিছনে ক্লাব ঘর নির্মাণ করে৷ প্রায় প্রতিদিনই সেখানে গভীর রাত পর্যন্ত লোকজনের আনাগোনা৷ সেখানে প্রতিনিয়ত ঢুকতে-বেরোতে দেখা যায় মালদা শহর, এমনকি জেলার রইস আদমিদেরও৷ খানাপিনা তো বটেই, সেখানে নাকি খেলাধুলারও বিন্দাস ব্যবস্থা৷ এমনটাই বক্তব্য স্থানীয়দের৷

সরকারি জায়গায় বেআইনি ক্লাব, জেলাশাসকের হানা

বিন্দাস কাটছিল এভাবেই৷ বিনা মেঘে বজ্রপাত হয় গত শনিবার৷ পুলিশ ও প্রশাসনিক কর্তাদের নিয়ে আদালত সংলগ্ন এলাকা পরিদর্শন করছিলেন জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য৷ হঠাৎ তাঁর নজরে পড়ে ক্লাবঘরটি৷ তবে তিনি জানতেন না সেটি ক্লাব৷ তিনি সঙ্গে থাকা অফিসারদের কাছে ঘরটি কোন দপ্তরের তা জানতে চান৷ এরপরেই তিনি জানতে পারেন, সেটি ক্লাবঘর৷ শোনার পরেই তিনি সটান সেখানে চলে যান৷ তাঁকে দেখেই সেসময় ঘরে থাকা কিছু ক্লাব সদস্য পালিয়ে বাঁচেন৷ সেদিনই জেলাশাসক ক্লাব কর্তৃপক্ষকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঘর খালি করার নির্দেশ দেন৷ অবশেষে এদিন ভোর থেকে শুরু হয়ে যায় ক্লাবঘর ভাঙার কাজ৷ লাগানো হয় দুটি জেসিবি৷ ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয় ইংরেজবাজার থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী৷ নেতৃত্বে ছিলেন থানার আইসি পূর্ণেন্দু কুণ্ডু৷ প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ৩ জন ম্যাজিস্ট্রেট সেখানে নিয়োগ করা হয়৷ একসময় ঘর ভাঙার কাজ খতিয়ে দেখে যান সদর মহকুমাশাসক এন সৈয়দ৷ যদিও তিনি সংবাদমাধ্যমকে কিছু বলেননি৷

এদিকে ক্লাব সদস্যরা উপস্থিত ম্যাজিস্ট্রেটদের জানান, ক্লাব ঘরে প্রচুর শীতবস্ত্র মজুত রয়েছে৷ শীতের সময় দার্জিলিং থেকে ভুটিয়ারা প্রতি বছর শহরে ব্যাবসা করতে আসে৷ মরশুম শেষে বাড়ি ফিরে গেলেও তারা অবিক্রীত মাল ক্লাবের গুদামে রেখে যায়৷ তাই সেই মালগুলি সরানোর সময় যেন দেওয়া হয়৷ সদস্যদের আর্জিতে সাড়া দিয়ে এদিন সন্ধে পর্যন্ত গুদাম থেকে মাল সরানোর সময় দেন মহকুমাশাসক৷

কিন্তু শনিবার জেলাশাসক হঠাৎ আদালত সংলগ্ন এলাকা কেন পরিদর্শন করলেন তা নিয়ে কৌতুহলি ক্লাব সদস্যরাও৷ প্রশাসনিক সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই জায়গায় খাদ্য ভবন তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার৷ সেই ভবনে আরও দুটি দপ্তরকে জায়গা দেওয়া হতে পারে৷ সেই ভবনের নকশা অনেক আগেই তৈরি হয়ে গিয়েছিল৷ ভবন নির্মাণের জন্য টাকাও প্রশাসনের হাতে চলে এসেছে৷ সেকারণেই ছুটির দিন সপার্ষদ জেলাশাসক জায়গা পরিদর্শন করছিলেন৷


#PostMortem #Video #Misc

বিজ্ঞাপন

Malda Guinea House.jpg

পপুলার

1

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের

Popular News

789

শীতের বনভোজনে ইংরেজবাজারে নিষেধাজ্ঞা পুলিশের
2

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড

Popular News

679

গ্রেফতার সাত ডাকাত, উদ্ধার হাঁসুয়া, লোহার রড
3

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ

Popular News

625

মানিকচকে গঙ্গায় ডুবল ভেসেল, সার্চলাইট জ্বালিয়ে খোঁজ
4

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল

Popular News

702

সুজাপুরে বিস্ফোরণস্থলে এলেন ফিরহাদ হাকিম, আসছে ফরেনসিক দল
5

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়

Popular News

1306

তীব্র বিস্ফোরণ সুজাপুরের প্লাস্টিক কারখানায়
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট
কমেন্ট করুন
 

aamadermalda.in

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS