জেলা প্রশাসনের বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ
f.jpg

জেলা প্রশাসনের বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ

মহাত্মা গান্ধী জাতীয় গ্রামীণ কর্মসংস্থান সুনিশ্চিতকরণ প্রকল্পের মাধ্যমে শুক্রবার ১৪ জুলাই থেকে বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ কর্মসূচি পালন শুরু করল জেলা প্রশাসন। আগামী ২০ জুলাই পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে। প্রথম দিনের কর্মসূচি অনুযায়ী জেলার প্রায় ৩০০ কিলোমিটার সড়কের পাশে বৃক্ষরোপন করা হবে। পাণ্ডুয়া গ্রামপঞ্চায়েতে রাস্তার ধারে বৃক্ষরোপণ করে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন জেলাসমাহর্তা কৌশিক ভট্টাচার্য।



এমজিএনআরইজিএস-এর জেলা প্রকল্প আধিকারিক সুকান্ত সাহা বলেন প্রথম দিনে হবিবপুর, গাজোল, বামনগোলাপুরাতন মালদা ব্লকের বিভিন্ন সড়কের পাশে ও বাকি অন্যান্য ১১টি ব্লকের সড়কগুলির পাশে দুই লক্ষ ৫০ হাজার বৃক্ষের চারা রোপণ করা হবে। দ্বিতীয় দিনে বিভিন্ন পিএমজিএসএসওয়াই রাস্তাগুলির ধারে, তৃতীয় দিনে এমজি যেন আরইজি প্রকল্পের রাস্তার ধারে ও চতুর্থ দিনে অন্যান্য রাস্তার ধারে বৃক্ষরোপণ করা হবে। এছাড়াও পঞ্চম দিনে সরকারি খাস জমিতে ও খালের ধারে, ষষ্ঠ দিনে বিভিন্ন স্কুলে ও সপ্তম দিনে বৃক্ষপাট্টা প্রদান ও প্রকল্প পরিদর্শন করা হবে। এই কাজের মাধ্যমে উক্ত সাত দিনে মালদা জেলাকে সবুজায়ন করার উদ্দেশ্যে ১৪৬টি গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রায় ১,১৫০ কিলোমিটার রাস্তার ধারে ১০ লক্ষ চারাগাছ রোপণ করে প্রায় আট লক্ষ শ্রমদিবস সৃষ্টি করা হবে এবং ১০ হাজার ৫০০ টি পরিবারকে বৃক্ষপাট্টা প্রদানের মাধ্যমে আগামী তিন বছর প্রতিমাসে প্রতিটি জীবিত গাছের (কমপক্ষে ৯০ শতাংশ) জন্য ১০ টাকা হারে প্রদান করা হবে।


এছাড়াও বৃক্ষরোপণ সপ্তাহ পালনের মাধ্যমে প্রায় ১৪২০ টি স্কুলে, গ্রামীণ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ও সুসংহত শিশু বিকাশ কেন্দ্রে প্রায় তিন লক্ষ চারাগাছ রোপণ করে ২,১১০ টি পরিবারকে দেখাশোনার দায়িত্ব দেওয়া হবে। সুকান্তবাবু আরও বলেন যে আগামী দিনে ১৪৬টি গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রায় ২০ হাজার পরিবারকে কমপক্ষে ৫০ টি করে ফলের চারা গাছ ও ১০০ দিনের অদক্ষ মজুরি প্রদানের মাধ্যমে তাদের আর্থিক ও সামাজিক ভাবে স্বাবলম্বী করা হবে। এছাড়াও ৩৮ হাজার স্বনির্ভর গোষ্ঠীর প্রায় তিন লক্ষ ১০ হাজার সদস্যাকে ও অপুষ্টিজনিত রোগের শিকার শিশুদের পরিবারকে পাঁচটি করে ফলের চারাগাছ প্রদান ও ১০০ দিনের কাজের যোগদানের মাধ্যমে তাদের শারীরিক ও আর্থিকভাবে উন্নতিসাধন করা হবে। ফলের গাছগুলির মধ্যে মূলতঃ আম, কাঁঠাল, পেয়ারা, কুল, ও সফেদা এবং অন্যান্য চারাগাছগুলির মধ্যে মেহগনি, নিম, শাল, সেগুন ও শিশু গাছ প্রদান করা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রকল্প আধিকারিক

হেডলাইন

প্রতিবেদন

ডিজিট্যাল যুগে বাধ সাধে নি লন্ঠন, যমজ বোনের সাফল্য উচ্চমাধ্যমিকে

বিদ‍্যুৎ পরিষেবা পেলেও আর্থিক সঙ্কট থাকায় বকেয়া বিল পরিশোধ করা সম্ভব হয়ে ওঠেনি। বাধ্য হয়েই তিন বছর ধরে লন্ঠনের আলোতেই পড়াশুনা চালিয়েছেন...

বিজ্ঞাপন

ফলো করুন
  • Facebook
  • Instagram
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest

সব খবর ইনবক্সে!

প্রতিদিন খবরের আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুন

Aamader Malda Worldwide, the only media of your hometown and its thoughts. Here you can share and express your views and thoughts and you'll get here the essence of MALDAIYA CULT...

You can reach us via email or phone.  P +91 3512-260260  E response@aamadermalda.in

  • Facebook
  • Twitter
  • YouTube
  • Pinterest
  • Instagram
  • RSS

Copyright © 2020 Aamader Malda. All Rights Reserved.