বিজ্ঞাপন

মুখ ঢেকে যায় বিজ্ঞাপনে

মালদা শহর যেন বিজ্ঞাপনে মুখ লুকিয়েছে। শহরের প্রধান রাস্তাঘাট কিংবা অলিগলি, চোখ মেললেই বিজ্ঞাপনের ডালি৷ নজরদারির কেউ নেই৷ তাই বিজ্ঞাপনে ঢাকা পড়েছে শিশুদের মনোরঞ্জনও। শিশুদের মনোরঞ্জনের জন্য শহরের বাঁধ রোডের প্রতিটি দেওয়ালে আঁকা হয়েছিল ছবি৷ কার্টুন চরিত্র থেকে পৌরাণিক কাহিনি উঠে এসেছিল সেই সব ছবিতে৷ একসময় পার্ক কিংবা সুইমিং পুলে শারীরিক কসরত করতে যাওয়ার পথে বাচ্চাদের টানে অভিভাবকদের হাত থমকে যেত৷ কিন্তু এখন সেই সব ছবির উপর জায়গা নিয়েছেন যাদুকর এ সরকার৷ তাঁর বিজ্ঞাপনে মুখ ঢেকেছে সেই সব ছবি৷ কে সেই বিজ্ঞাপন লাগানোর অনুমতি দিল, সেখান থেকে পৌরসভার কোনও আয় হচ্ছে কিনা, সেসব কারোর জানা নেই৷ জানেন না খোদ পুরপ্রধানও৷ তবে সব শুনে তিনি এনিয়ে খোঁজখবর নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন৷ সেই খোঁজ পুরসভা কবে নেবে তার দিকেই তাকিয়ে রয়েছেন আপামর শহরবাসী৷


ইংরেজবাজার পুরসভার চেয়ারম্যান থাকাকালীন কৃষ্ণেন্দুনারায়ণ চৌধুরির উদ্যোগেই বাঁধ রোডের দেওয়ালগুলিতে শিশুদের মনোরঞ্জনের জন্য বিভিন্ন ধরণের ছবি আঁকা হয়েছিল৷ শুধু শিশুরা নয়, সেই সব ছবি উপভোগ করতেন বড়োরাও৷ সেকথাই শোনা গিয়েছে শহরের এক বাসিন্দা মানিক ঘোষের গলায়৷ তিনি বলেন, তাঁর মতো অনেকেই প্রতিদিন বাঁধ রোডে প্রাতর্ভ্রমণ করে থাকেন৷ ক্লান্ত হয়ে গেলে রাস্তার ধারে থাকা বেঞ্চগুলিতে বসেন৷ সেখান থেকেই তাঁদের সবার নজরে পড়ে এই সব ছবি৷ বাচ্চারাও এই সব ছবি পছন্দ করে৷ অথচ সেই ছবিগুলির উপরে বিজ্ঞাপনী পোস্টার সেঁটে দেওয়া হয়েছে৷ কে বা কারা, কার অনুমতিতে এই পোস্টার মেরেছে তা তাঁদের জানা নেই৷ বলা হচ্ছে, দুঃস্থ শিশুদের জন্যই ওই যাদুকর নাকি টাউন হলে শো করবেন৷ কিন্ত সেই যাদুকরের পোস্টার শিশুদের মনোরঞ্জনের উপর সাঁটা হল কেন? প্রশ্ন মানিকবাবুর মতো আরও অনেকেরই৷ সম্প্রতি মালদা শহরকে গ্রিন সিটির আওতায় এনেছে পুর কর্তৃপক্ষ৷ শহরকে শুধু সবুজ করাই নয়, শহরের সৌন্দর্যায়নের জন্যও খরচ করা হচ্ছে কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা৷ কিন্তু সেই শহর এভাবে দৃশ্যদূষণে জর্জরিত কেন? কেউ কেউ বলছেন, এতে প্রতি বছর পুরসভার কোটি টাকা উপার্জন হচ্ছে৷ উত্তরে পুরপ্রধান নীহাররঞ্জন ঘোষ বলেন, ওই ছবিগুলি খুব গুরুত্ব দিয়ে তৈরি হয়নি৷ তবুও সেই সব ছবির উপর যদি যাদুকরের পোস্টার সাঁটা হয়ে থাকে তবে কে বা কারা সেই বিজ্ঞাপন ব্যবহার করল, কে অনুমতি দিল, তা তিনি খোঁজ নিয়ে দেখছেন৷ এতে যদি কারোর বিরুদ্ধে দোষ প্রমাণিত হয় তবে তাঁরা আইনগত ব্যবস্থা নেবেন৷ পুরপ্রধান আশ্বাস দিয়েছেন, ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷ কিন্তু সেই ব্যবস্থা কবে গৃহীত হবে তা জানা নেই৷ সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন শহরবাসী৷

#DigitalDesk #Misc

বিজ্ঞাপন

Valentines-day.jpg
পপুলার

795

1

দেড়শো জননেতা সহ গেরুয়া শিবিরে তৃণমূলের মালদা জেলা সাধারণ সম্পাদক

দেড়শো জননেতা সহ গেরুয়া শিবিরে তৃণমূলের মালদা জেলা সাধারণ সম্পাদক

1776

2

এখন ১২ মাস কাজ করবে মালদার সিভিক ভলান্টিয়াররা

এখন ১২ মাস কাজ করবে মালদার সিভিক ভলান্টিয়াররা

626

3

কাল মালদায় মমতা, সভামঞ্চে উঠতে করোনা পরীক্ষা

কাল মালদায় মমতা, সভামঞ্চে উঠতে করোনা পরীক্ষা

592

4

কালিয়াচকে সালিশি সভায় চলল গুলি, মৃত এক

কালিয়াচকে সালিশি সভায় চলল গুলি, মৃত এক

40617

5

মধুচক্রের পাশাপাশি ব্লু ফিল্‌ম তৈরির অভিযোগ মালদায়

মধুচক্রের পাশাপাশি ব্লু ফিল্‌ম তৈরির অভিযোগ মালদায়
Earnbounty_300_250_0208.jpg
At the Grocery Shop
টাটকা আপডেট

সাবস্ক্রিপশন

স্বত্ব © ২০২০ আমাদের মালদা

  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • YouTube
  • Pinterest
  • RSS