top of page

রাতারাতি পাম্প বসল মুখ্যমন্ত্রীর সভায়, পাশের গ্রামে নিত্যদিন জলকষ্ট

পুরাতন মালদার ছোটো সুজাপুর ময়দানে মুখ্যমন্ত্রীর দলীয় কর্মীসভার জন্য রাতারাতি বসানো হল সাবমার্শিবল পাম্প। অথচ সেই সভাস্থল থেকে মাত্র ২ কিলোমিটার দূরে সাহাপুর গ্রামপঞ্চায়েতের মাধাইপুরের বাসিন্দারা পানীয় জলের কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন। ওই এলাকার বাসিন্দারা মুখ্যমন্ত্রীর সভাস্থলের মতো রাতারাতি পানীয় জলের পাম্পের দাবি তুলেছেন। দাবি তুলেছেন পাকা রাস্তা ও পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ পরিসেবার।


পুরাতন মালদার সাহাপুর গ্রামপঞ্চায়েতের পাথার মাধাইপুর গ্রাম৷ গ্রামে নেই পরিস্রুত পানীয় জলের ব্যবস্থা, নেই পাকা রাস্তাঘাট, এমনকি যথাযথ নয় বিদ্যুতের পরিকাঠামো৷ রাস্তার জন্য পড়াশোনায় একটি বছর নষ্ট হয়েছে আরিফা খাতুনের৷ সে পাশের বলাতুলি হাইস্কুলে একাদশ শ্রেণিতে পড়ে৷ এবার তার দ্বাদশ শ্রেণিতে ওঠার কথা ছিল৷ কিন্তু বর্ষার সময় নৌকা ছাড়া বিল পেরোনো যায় না। সে বছর বর্ষায় বিলে নৌকা না থাকায় সে স্কুলে যেতে পারেনি। জল শুকোলে সে স্কুলে গিয়ে জানতে পারে রেজিস্ট্রেশনের সময় শেষ। রাস্তার অভাবে তার এক বছর নষ্ট হয়েছে বলে দাবি আরিফার। সমস্ত সমস্যার সমাধানের জন্য আগামীকালের মুখ্যমন্ত্রীর দলীয় সভার দিকে তাকিয়ে রয়েছে গ্রামবাসী।


খাসেনুর বিবি, গ্রামের এক বাসিন্দা

আমরা নলকূপের জল পান করি৷ নলকূপ নষ্ট হলে চাষের মাঠ থেকে পাম্পের জল আনতে হয়৷ এই গ্রামে এখনও পাকা রাস্তা তৈরি হয়নি৷ বর্ষার সময় ছেলেমেয়েরা স্কুল যেতে পারে না৷ তাদের পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যায়৷ বহুবার অনেক জায়গায় আবেদন জানালেও ফল মেলেনি। আগামীকাল মুখ্যমন্ত্রী পাশের গ্রামে সভা করবেন৷ আমরা তাঁর কাছে নিজেদের সমস্যা সমাধানের দাবি জানাচ্ছি৷


সাহাপুর গ্রামপঞ্চায়েত প্রধান উকিল মণ্ডল জানান, পাথার মাধাইপুর গ্রামটি পিছিয়ে রয়েছে৷ ওই গ্রামে পানীয় জল ও রাস্তাঘাটের সমস্যা রয়েছে৷ ওই গ্রামে প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণ করা প্রয়োজন৷ কিন্তু পঞ্চায়েতের পক্ষে সেই রাস্তা তৈরি করা সম্ভব নয়৷ বিষয়টি তিনি এলাকার সাংসদ ও বিধায়ককে জানিয়েছেন৷





মালদা জেলার খবর ও বিনোদনের লেটেস্ট ভিডিয়ো আপডেট পেতে ক্লিক করুন

Comments

Couldn’t Load Comments
It looks like there was a technical problem. Try reconnecting or refreshing the page.

বিজ্ঞাপন

Malda-Guinea-House.jpg

আরও পড়ুন

bottom of page